1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. shadinbd@gmail.com : shadin : Nazmul Mondol
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৯:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ -
ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে নলছিটিতে বেড়েছে নদীর পানি মিতু সেতু চেরিট্যাবেল সোসাইটির উদ্যোগে তামাক বিরোধী অবস্থান কর্মসূচী পালিত শ্রীপুরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে পরকিয়া সহ ১২ লক্ষ টাকা ঘুষ নেওয়া অভিযোগ শ্রীপুর উপজেলা আ,লীগের সভাপতির পরাজয় ছাত্রলীগ নেতার কাছে নলছিটি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে সালাহ উদ্দিন খান সেলিম বিজয়ী ঢাকা কাস্টমস্ এজেন্টস্ এসোসিয়েশন নির্বাচনের মিজান লাভলু বাশার পরিষদের মতবিনিময়  শ্রীপুরে আহমেদ আবু জাফর এর পিতার মৃত্যুতে শোক সভা অনুষ্ঠিত। গাজীপুরে প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলরের প্রভাব খাটিয়ে ছেলেকে বর্জ্য অপসারণের কাজ দেওয়ার অভিযোগ পুকুরে গোসল করতে নেমে প্রাণ গেল নির্মাণ শ্রমিকের! উত্তরায় ড্রাইভওয়ে অবমুক্ত করে ট্রাফিক উত্তরা পশ্চিম জোন

চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার অপেক্ষায় তৃণমূল নেতাকর্মীবৃন্দ।

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২৩
  • ৯৬ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-  ক্ষমতাশীন দল বাংলাদেশ আ”লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সাংগঠিক কার্যক্রমকে আরও বেগবান করতে সকল জেলা, থানা ও ওয়ার্ডে কমিটির ঘোষণার করছে সম্মেলনের মাধ্যমে। ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে কমিটির ঘোষণা হয়েছে অনেক জেলায় জেলায়। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগও তাঁর ব্যতিক্র নয়। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আ”লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার যুগান্তকারী আবিষ্কার বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে সামশ পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল খান নিখিলের দূরদর্শী নেতৃত্বে আ”যুবলীলের জন জোয়ারের মাধ্যমে সফল সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় গত ২২শে মে ২০২২ই তারিখে চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় এবং দিদারুল ইসলাম চৌধুরী সভাপতি ও জহিরুল ইসলামকে সাধারন সম্পাদকের হিসেবে নির্বাচিত করে ১৬ই নভেম্বর ২০২২ইং তারিখে ৩৫ জন সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন ঐ দুই নেতা। তাঁরই ধারাবাহিকতায় আগামী চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ১০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ক্লিন ইমেজের নেতাদের আশা করছে তৃনমূল। বিতর্কিত সুবিধা বাদী, বিএনপি জামাতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে ভোটের মাঠে ভূমিকা রাখতে পরবে সেরকম যোগ্য নেতা চাচাই বাছাই চলছে বলে জানা যায়।
পূর্নাঙ্গ জেলা কমিটিতে ক্লিন ইমেজের তৃণমূল নেতাকর্মীদের স্থান পাবে তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনাকল্পনা। এবিষয়ে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের প্রবীণ ও নবীন তৃণমূল নেতা কর্মীদের সাথে আলোচনায় উঠে আসে, ক্লিন ইমেজের নেতা মোহাম্মদ কামাল উদ্দিনকে চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের উপঃ প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হিসাবে দেখতে চাওয়ার কথা। এলাকাবাসি বলেন, কামাল শিক্ষিত সম্ভ্রান্ত আ”লীগ পরিবারের সন্তান, উক্ত চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগে তার আত্মীয় স্বজনদের বসবাস। যা আগামী জাতীয় সাংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে অগ্রনী ভূমিকা রাখবে। এবং ক্লিন ইমেজের সাথে রাজনৈতিক সকল কার্যক্রম বেগমান করবে।তারা আরও বলেন,ছাত্রলীগের চুনতি ইউনিয়ন শাখার প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকের(১৯৯২-৯৩ ইং) মাধ্যমে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শুরু, পর্যায় ক্রমে তিনি চট্টগ্রাম সরকারী সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (১৯৯৭-৯৮ ইং) ও চট্টগ্রাম মহানগরের ৩৫ নং ওয়ার্ড বকশী হাট শাখা যুবলীগের কার্যনিবাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন নিষ্ঠার সাথে। এছাড়াও কামাল উদ্দিন শিক্ষানুরাগী ও সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনা করে মানবতার সাথে। তিনি চুনতি উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচিত পরিচালনা কমিটির ১নং সদস্য ও চুনতি মিরিখিল ফারুকিয়া মাদ্রাসার উপদেষ্টা পদে বর্তমান দায়িত্বে আছেন।
যোগ্যতায় কামাল উদ্দিনের কোন বিকল্প নেই। কামাল উদ্দিন দলের দায়িত্ব পেলে সাধারণ মানুষের জন্য এবং দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম ত্বরান্বিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন এলাকা বাসি।পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মকান্ডে জনমনে গ্রহণযোগ্য নেতা হিসেবে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।সেই সুবাদে চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের কর্মী বান্ধব ও পরিচ্ছন্ন নেতা হিসেবে কামাল অত্র চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের উপ প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক পদপ্রার্থী হিসাবে যোগ্য।
চট্রগ্রাম দক্ষিণ জেলা এর রাজনৈতিক অঙ্গনে কামাল উদ্দিন সুপরিচিত নাম। রাজনীতি নিয়ে কামাল উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থাশীল ক্লিন ইমেজে ছাত্রলীগ, যুবলীগ করেছি। সময়ের সাহসী বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সৈনিকদের নিয়ে পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক অঙ্গন তৈরি করতে চাই। যুগপৎ আন্দোলন সংগ্রামে সাধারণ মানুষের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে রাজপথে সংগ্রাম থেকেছি। ইতিমধ্যেই জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগী তৃণমূল নেতৃবৃন্দের মূল্যায়নের কথা ঘোষণা দিয়েছেন,
এছাড়াও ১৯৯১/৯২/৯৩ সালে “জামাত শিবির রাজাকার এইমুর্হতে বাংলা ছাড়, একটা দুইটা শিবির ধর সকাল বিকাল নাস্তা কর” শ্লোগানে রাজপথে জামাত বিএনপি জোট সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রামে করছি অকুতোভয়ে। এছাড়াও ১৯৯৪ সালে ২৪শে জুলাই চট্টগ্রামে লাল দীঘির মাঠে নরপিশাচ রাজাকার গোলাপ আজমের জনসভা প্রতিরোধ করেছি সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক ভিপি শ্রদ্ধেয় বড় ভাই মাসুদ করিম টিটুর নেতৃত্ব আজ তিনি ঘরমুখো প্রায়। দল আমাকে মূল্যায়ন করলে, দুর্দিনের সংগ্রামে রাজপথ পাহারা দেওয়া বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক ও জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাহুবলদের নিয়ে আমি রাজনৈতিক অঙ্গনকে ঢেলে সাজাবো ইনশাআল্লাহ।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park