1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. unews.mahmud@gmail.com : Mahmud hasan : Mahmud hasan
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ -
জয়া আহসানের ফেরেশতে ইরানে পুরস্কৃত কাপাসিয়ায় যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ডাঃ মোঃ আবুল কালাম আজাদ  স্বাধীনতার ৫৩-বছর পর শহিদ বুদ্ধিজীবীর স্বীকৃতি পেলেন স্কুল শিক্ষক কড়িহাতা বাগান থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার মাধবপুরে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি আটক গোয়াইনঘাট উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের পক্ষ থেকে মহান শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা কিশোরগঞ্জে ভৈরবে পলিথিন কারখানার তিন মালিক কে পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা ইউএনওকে বহাল রাখার দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান ভাষা আন্দোলনের ৭২ বছর পার হলেও পাইকগাছায় অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই কোন শহীদ মিনার

চবি শিক্ষার্থীদের হাত ধরে ভিক্ষুক থেকে ব্যবসায়ী রাজু

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৮৬৮ বার পঠিত

চবি শিক্ষার্থীদের হাত ধরে ভিক্ষুক থেকে ব্যবসায়ী রাজু

হুসাইন মাহমুদ,চবি প্রতিনিধিঃ 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাত ধরে বদলে গেল এক ভিক্ষুকের জীবন। রাজু নামের এই যুবকের বাড়ি চট্টগ্রামের ঝাউতলা। তাঁর জীবনের গল্পটা শুরু যখন তার বয়স ৮ বছর। বাবা ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ায় সংসার চালানোর মতো কেউ নেই। মায়ের সাথেই ভিক্ষা করতে হয় রাজুকে। ভিক্ষার সময় ঘুরতে ঘুরতে একদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রবেশ করেন রাজু।

সেখানে পরিচয় ঘটে চারুকলার ঝুমা ও অপুর সাথে। তার কষ্টের গল্প শুনে তার পাশে এসে দাঁড়ায় দুজনে। রাজু (ডুগডুগি নামক খেলনা) তৈরি করতে পারতো বিধায় তাঁরা তাকে খেলনার দোকান দিতে বলে এবং কিছু টাকাও দেয়। এতে উৎসাহিত হয়ে ব্যবসা শুরু করেন তিনি। তাকে ব্যবসার পাশাপাশি পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী। কিন্তু পাড়াশোনা বেশিদিন করতে পারেন নাই তিনি। অর্থের অভাব ও পারিবারিক সমস্যার কারণে অষ্টম শ্রেণীতেই শিক্ষাজীবনের ইতি টানতে হয় তার।

রাজু বলেন ভার্সিটির ভাইয়া ও আপুরাই আমার জীবনকে পরিবর্তন করে দিয়েছে। আমিও হয়তো আমার সমাজের পোলাপানের মতো মাদকাসক্ত বা চোর-ডাকাত হতে পারতাম। কিন্তু আল্লাহর রহমতে আমি (চবির) ঝুমা ও অপুদার মতো দুজন মানুষ পেয়েছিলাম। তারাই আমাকে বর্তমানের এই যায়গায় নিয়ে এসেছে।

সময়ের বিবর্তনে এখন তিনি একজন সফল ফেরিওয়ালা। মাসিক আয় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। ব্যবসার পাশাপাশি তিনি একজন গায়ক ও বটে। বাউল ও লালন শাহ এর গান করে থাকেন। সুযোগ পেলেই চবি স্টেশনে শিক্ষার্থীদের সাথে সুর মেলান। স্বপ্ন তার গানের শিল্পী হওয়া। ভালো গান করতে পারলেও সুযোগ পাচ্ছে না কোন শিল্পীর দলে।

তবে এটা নিয়ে তার মাঝে কোন হতাশা নেই। যতদিন পর্যন্ত সে তার স্বপ্ন পূরণ করতে না পারবে ততদিন সে চেষ্টা চালিয়ে যাবে। সবমিলিয়ে এখন তিনি সুখে শান্তিতে দিন কাটাচ্ছেন। একটা পরামর্শ বা সামান্য কিছু টাকার মাধ্যমে আপনারা চাইলে সমাজের অনেক মানুষের জীবনকে বদলে দিতে পারেন ।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park