1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. unews.mahmud@gmail.com : Mahmud hasan : Mahmud hasan
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ -
উত্তরা পাবনা সোসাইটির সভাপতি, ড.আমিন উদ্দিন, নির্বাহী সভাপতি বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক, মিঠু কাপাসিয়া মডেল সরকারি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক শাহেলী নাছরিনের যোগদান প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে তৎপর খসরু চৌধুরী গলদাপাড়া নিয়ামত আলী উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক  অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত।  শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী দূর্গাপুরে দুটি গ্রামীণ রাস্তার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উত্তরা ১৩ সোসাইটি নির্বাচন: সভাপতি ব্রিগেডিয়ার জাহিদ সেক্রেটারি শাহনাজ পান্না কাপাসিয়ায় খামারিদের মাঝে বিনামূল্যে মিল্কিং মেশিন বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ট্রাক অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘষে নিহত -২ পত্নীতলায় জাতীয় ভোটার দিবস পালন

পত্নীতলায় অবৈধ জাল দিয়ে মাছ নিধন, প্রশাসন নিরব

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৮৩ বার পঠিত

পত্নীতলায় অবৈধ জাল দিয়ে মাছ নিধন, প্রশাসন নিরব

সাহিদ,পত্নীতলা ( নওগাঁ ) প্রতিনিধি:নওগাঁর পত্নীতলায় খুকসির বিল সহ নদীতে অবৈধ জাল দিয়ে অবাধে মাছ ধরা চললেও প্রশাসন নির্বিকার। এতে অচিরেই নদী থেকে দেশীয় প্রজাতির মাছ বিলুপ্ত হয়ে যাবার শঙ্কা সাধারণ মানুষের।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিল ও ছোট যমুনা নদীতে বিভিন্ন জায়গায় দিনেরাতে লোকজন অবাধে রিং জাল ( চায়না জাল), কারেন্ট জাল সহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে ডিমওয়ালা মা এবং পোনা মাছ নিধন চলছে। এসব জালে মাছের পাশাপাশি অনেক পোনাও আটকা পড়ে।

কিন্তু পোনা কোনো কাজে লাগে না বলে মৃত পোনাগুলো ফেলে দেয়া হয়। জালগুলো ভাটিতে বিল ও নদীর ঢালের দিকে খুঁটিতে পানির নিচে বেঁধে রাখা হয়। এসব জালে ছোট-বড় মাছের সাথে একেবারে ক্ষুদ্র পোনাও ধরা পড়ে।

উপজেলার নদী ও বিলে এই ধরনের জালগুলোতে সয়লাব হয়ে গেছে। অবৈধ জালের ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায় মাছের স্বাভাবিক প্রজনন, বংশ বিস্তার ও বৃদ্ধি ব্যাহত হচ্ছে। অচিরেই এসব জাল বন্ধ না হলে দেশের মৎস্যভাণ্ডারে বিপর্যয় নেমে আসার শঙ্কা সাধারণ মানুষের। অবৈধ জাল দিয়ে এক শ্রেণির অসাধু জেলেরা মা মাছ নিধন করলেও উপজেলা মৎস‍্য অফিসের নেই কোনো নজরদারী।

আমাইড় ইউনিয়নের অষ্টমাত্রাই গ্রামের রাব্বানী বলেন, আমরা উপজেলা মৎস‍্য অফিসারকে অবৈধ রিং জাল ধরার জন‍্য একাধিক বার ফোন করে বলার পরেও তার কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। তিনি আসবেন বলেন কিন্তু আসেন না।

একই এলাকার জেলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শর্তে বলেন, বিলে ও নদীতে হাজার হাজার অবৈধ চায়না জাল দিয়ে মাছ ধরতেছে কিন্তু পত্নীতলা উপজেলা মৎস‍্য অফিসার এখানে আসেই না। পার্শ্ববর্তী উপজেলা বদলগাছি থেকে অফিসার আসে জাল ধরে নিয়ে যায়।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু সাঈদ বলেন, তিনটি উপজেলা বিস্তৃত খুকসির বিল কিছুদিন আগে বদলগাছী মৎস‍্য অফিসার অভিযান দিয়েছিলো। আমরাও খুব শীঘ্রই অভিযান পরিচালনা করবো বলে জানান তিনি।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park