1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. unews.mahmud@gmail.com : Mahmud hasan : Mahmud hasan
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ -
বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ডে মাধবপুরের প্রবাসীর স্ত্রী ও কন্যা নিহত ভাইস চেয়ারম্যান পদে জমজমাট প্রচারণায় ইমান উল্লাহ শেখ ইমু সংবাদকর্মীর বাড়ীতে হামলার পর এখন আবার দেখে নেয়ার হুমকী অভিযুক্তদের শ্রীপুরে গৃহবধূর দগ্ধ লাশ উদ্ধার, স্বামীসহ পুলিশ হেফাজতে -২ কাপাসিয়ায় নবাগত ইউএনও’র যোগদান ত্রিশালে সুফী চর্চা কেন্দ্রে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর  মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।  উত্তরা নাইস স্কুল এন্ড কলেজের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বার্ষিক ক্রীড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান। গাজীপুরে সাবাহ্ গার্ডেনে স্কুল পড়ুয়াদের অসামাজিক কর্মকাণ্ড অব্যাহত কাকে বিয়ে করছেন ডানকি কন্যা তাপসী পান্নু!

পাইকগাছায় নব্যতা হারিয়ে মরাখালে পরিণত ঐতিহ্যবাহী নদী শিবসা

  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৮৩ বার পঠিত

উজ্জ্বল কুমার দাস।।ঃঃ- খুলনার পাইকগাছায় নব্যতা হারিয়ে মরাখালে পরিণত হয়েছে ঐতিহ্যবাহী নদী শিবসা । গত কয়েক বছরের ব্যবধানে নদীটি সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে ভাটায় বন্ধ হয়ে গেছে নৌযান চলাচল এবং এর প্রভাব পড়েছে ব্যবসা-বাণিজ্যের উপর। নদীটি দ্রুত খনন না করলে দু-এক বছরের মধ্যে উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন প্লাবিত হওয়ার আশংকা রয়েছে। সূত্র মতে জানা যায়, এ এলাকার নদ-নদীগুলোর মধ্যে অন্যতম শিবসা নদী। কপোতাক্ষের শেষ প্রান্ত হতে শুরু হয়েছে শিবসা। যা বহমান আকারে মিশেছে সুন্দরবনে। উপজেলার অন্যান্য নদ-নদীগুলোর সংযোগ রয়েছে শিবসার সাথে। যার কারণে বৃহৎ এলাকার পানি সরবরাহের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে শিবসা। গত ৩ দশক আগেও ঐতিহ্যবাহী নদীটি ছিল ভরা যৌবন। এলাকার যখন অবকাঠামোগত উন্নয়নে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি তখন যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম ছিল শিবসা নদী। জেলা শহরে যাতায়াতসহ ব্যবসা-বাণিজ্যের সকল পণ্য আনা-নেওয়ার অন্যতম মাধ্যমও ছিল এ নদীটি। জেলে সম্প্রদায়সহ শত শত নিম্ন আয়ের পরিবার নদী থেকে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করত। কিন্তু কালের বিবর্তনে ঐতিহ্যবাহী নদীটি আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। পলি জমতে জমতে শিবাটী থেকে সোলাদানার ত্রিমোহনী পর্যন্ত প্রায় ১৫ কিলোমিটার নদী সম্পূর্ণ ভরাট হয়ে মরাখালে পরিণত হয়েছে। জোয়ারের সময় প্রাণবন্ত মনে হলেও ভাটার সময় সম্পূর্ণ শুকিয়ে যায়। যার কারণে জোয়ারের সময় পারাপাররত যাত্রীরা নৌকায় পার হলেও ভাটার সময় হাটু কাঁদা ভেঙ্গে পায়ে হেটে নদী পার হয়। যেভাবে নদী ভরাট হচ্ছে তাতে আগামী ২/১ বছরের মধ্যে বৃহৎ এলাকার পানি সরবরাহ সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হতে পারে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী অমর মন্ডল জানান, এলাকার ব্যবসা-বাণিজ্যের সকল পণ্য এক সময় নদী পথে সরবরাহ করা হতো। শিবসা নদী ভরাট হয়ে যাওয়ায় গত কয়েক বছর নৌপথে পণ্য আনা-নেওয়া প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। যার প্রভাব পড়েছে ব্যবসা-বাণিজ্যে। কারণ, নৌপথে পণ্য আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রে ক্ষয়ক্ষতি কম হওয়াসহ সড়ক পথের চেয়ে পরিবহন খরচ অনেক কম হয়। এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌরসভা কাউন্সিলর কবিতা রানী দাস জানান, নদীটি ইতোমধ্যে জোয়ারের পানি ধরে রাখার সম্পূর্ণ ধারণ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে। যার কারণে প্রতিনিয়ত জোয়ারের উপচে পড়া পানি ভিতরে ঢুকে পৌর বাজারকে প্লাবিত করছে। গত কয়েক বছরের ব্যবধানে নদীটির মূল ঐতিহ্য সম্পূর্ণ বিলীন হয়েছে। দ্রুত খনন না করলে আগামী ২/১ বছরের মধ্যে উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নসহ বৃহৎ এলাকা প্লাবিত হয়ে জনজীবন বসবাসের অনুপযোগী হয়ে পড়বে। মুখ থুবড়ে পড়বে এলাকার সামগ্রিক উন্নয়ন। এ অবস্থায় ঐতিহ্যবাহী শিবসা নদী দ্রুত খননে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপরে আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে বিশিষ্ট সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী এ্যড.এফ এম‌এ রাজ্জাক বলেন পাইকগাছা বাঁশি তথা পৌরবাসীকে বাঁচাতে হলে নদী খননের কোন বিকল্প নেই।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park