1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. unews.mahmud@gmail.com : Mahmud hasan : Mahmud hasan
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ -
বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ডে মাধবপুরের প্রবাসীর স্ত্রী ও কন্যা নিহত ভাইস চেয়ারম্যান পদে জমজমাট প্রচারণায় ইমান উল্লাহ শেখ ইমু সংবাদকর্মীর বাড়ীতে হামলার পর এখন আবার দেখে নেয়ার হুমকী অভিযুক্তদের শ্রীপুরে গৃহবধূর দগ্ধ লাশ উদ্ধার, স্বামীসহ পুলিশ হেফাজতে -২ কাপাসিয়ায় নবাগত ইউএনও’র যোগদান ত্রিশালে সুফী চর্চা কেন্দ্রে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর  মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।  উত্তরা নাইস স্কুল এন্ড কলেজের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বার্ষিক ক্রীড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান। গাজীপুরে সাবাহ্ গার্ডেনে স্কুল পড়ুয়াদের অসামাজিক কর্মকাণ্ড অব্যাহত কাকে বিয়ে করছেন ডানকি কন্যা তাপসী পান্নু!

শালিক রেস্তোরাঁর মালিকের বিরুদ্ধে মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৮৫ বার পঠিত

শালিক রেস্তোরাঁর মালিকের বিরুদ্ধে মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃকক্সবাজার শহরের কলাতলীমোড়ে সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান শালিক রেস্তোরাঁর মালিক নাছির উদ্দীনের বিরুদ্ধে কর্মচারীদের মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

বিতর্কিত শালিক রেস্তোরাঁ মালিকের হাতে নির্যাতনের শিকার হাসপাতালে সায়েদ বিন আবদুল্লাহ।
শালিক রেস্তোরাঁ কতৃক তাঁকে নির্যাতনের খবর পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা ছুটে গেলে তুলে ধরেন নির্মম নির্যাতনের কথা।
ভয়াবহ নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে আব্দুল্লাহ বলেন, মালিক কে বলে ৫মিনিটের জন্য গিয়েছিলাম বাহিরে। সেখান থেকে ফিরলেও আমার মালিক নাছির উদ্দীন বাচ্ছু আমার হাত পা বেঁধে মারধর করে। এর আগেও একইভাবে আমার ওপর নির্যাতন করেছে। মারধরের সময় ওরে বাপরে, ভাইরে, আল্লাহ দোহাই।অরে ভাইরে, ওরে আব্বারে ছেড়ে দে। তাঁরপরও আমি রক্ষা পাইনি।এই ঘটনা কাউকে না জানাতে আমাকে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। শুধু আবদুল্লাহ নয় তার মতো একইভাবেই নারী কর্মীদের ওপর করা হয় নির্যাতন।

অভিযোগ রয়েছে এর আগেও মদ পান করে তার রেস্তোরাঁর কর্মীদের ওপর নির্যতন।

পারভিন (ছদ্মনাম) বলেন, আমাদের হোটেলের স্যার প্রতিরাতে মদ পান করে এসে আমাদের মারধর ও গালিগালাজ করে। এবং শুধু এই ঘটনা নয় পাশাপাশি কুপ্রস্তাবও দেন নাছির ও তার ভাই হেলাল। আমরা একসাথে ৪জন চাকরি ছেড়ে দিয়েছি তাদের এসব নির্যাতনের কারনে।

নির্যাতনের ঘটনায় থানায় অভিযোগ করতে গেলে তাদের একটি কক্ষে বসিয়ে রাখে। গণমাধ্যম কর্মীরা তাদের সাথে কথা বলতে চাইলে পুলিশ কথা বলতে দে নাই। গণমাধ্যম কর্মীরাও তারা কখন বের হবে সে অপেক্ষায় বসে থাকলেও পুলিশ কঠোর নিরাপত্তায় গণমাধ্যম কর্মীদের এড়িয়ে তাদের নিয়ে যান।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রকিবুজ্জামান বলেন, শালিক রেস্তোরাঁ মালিক কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগ ৫ মিনিট আগে পেয়েছি, এ ঘটনায় অভিযুক্ত আসামীর বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একই অভিযোগ ছিল শালিক রেস্তোরাঁ মালিক নাছির পুত্র আরিফের বিরুদ্ধে। পরে এই ঘটনায় স্কুল শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করলে আরিফকে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় পৌঁছে দেন তার পিতা। শালিক রেস্তোরাঁ মালিক নাছির উদ্দীনের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড় থাকলেও তাকে কেন আইনের আওতায় আনতে ব্যার্থ হচ্ছে পুলিশ সেটা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে নানান প্রশ্ন ঘুরছে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park