1. admin@shadin-bd.com : admin :
  2. shadinbd@gmail.com : shadin : Nazmul Mondol
সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:০২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ -
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করলেন আলমগীর হোসেন আকন্দ ঝালকাঠি সদর ও নলছিটি উপজেলায় ৩পদে ২৪ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ৮ প্রার্থীকে শোকজ পত্নীতলায় শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী কৃষি মেলা শ্রীপুরে নেশার টাকা দিতে অস্বীকার করায় মায়ের হাতের রগ কেটে দিয়েছে কুলাঙ্গার সন্তান দুধমুখা স্টার লাইন কাউন্টারে যাত্রী হয়রানীর অভিযোগ শ্রীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সাংবাদিক আহত দক্ষিনখানে ঈদের ছুটিতে ফাঁকা বাসার ৫টি ফ্ল্যাটে দুর্ধর্ষ চুরি শ্রীপুরের উন্নয়নে নেতাকর্মীদের শর্ত দিয়ে নির্বাচনের ঘোষণা দিলেন – দুর্জয়।

শ্রীপুরে ইউপি সদস্যের বিচারের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০২৪
  • ৬১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় প্রতিবন্ধী লাল মিয়ার ঘরবাড়ি ভেঙে গুড়িয়ে দেয়ার পর, স্থানীয় প্রশাসনের নিদর্শনায় পূনরায় বসতবাড়ি নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য বাঁধা দেয়। প্রতিবন্ধী লাল মিয়ার বসতবাড়ি নির্মাণে ইউপি সদস্যের বাঁধার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করছে স্থানীয় গ্রামবাসী।

সোমবার (২৫ মার্চ) বিকালে ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের বাঁশবাড়ি গ্রামের বাঁশবাড়ি টু ফুলবাড়িয়া আঞ্চলিক সড়কে কয়েক শতাধিক মানুষ ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

ভুক্তভোগী প্রতিবন্ধী লাল মিয়া (৫৫) উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামের মৃত রহমান আলীর ছেলে। তিনি একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মো. ইদ্রিস আলী (৫০) উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামের মৃত শামসুল হকের ছেলে। তিনি ২নং গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

ভুক্তভোগী লাল মিয়ার স্ত্রী রাহেলা খাতুন বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালী সিরাজুল হক ও তার ছেলে মিজানুর রহমান ও আজিজুল হক, আমার বসতবাড়ি ভেঙে গুড়িয়ে দেয়। এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও আমার বসতবাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন পরে সোমবার সকালে ঘরবাড়ি নির্মাণ কাজ শুরু করতে গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলী এসে হুমকি ধামকি দিয়ে কাঠমিস্ত্রীদের বিদায় করে দেয়। অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মো. ইদ্রিস আলীর ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে পরপর কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেনি।

২নং গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল হক মাদবর বলেন, আমাকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মহোদয় ফোন দেয়ার পরপরই আমি মেম্বারকে এবিষয়ে মাথা না ঘামানোর জন্য জানিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শোভন রাংসা বলেন, বসতবাড়ি ভেঙে গুড়িয়ে দেয়ার পরপরই প্রশাসনের পক্ষে সকল ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ স্বাধীন বিডি
Theme Customized By Shakil IT Park